in ,

গরমে ত্বকের যত্ন

লাইফ ষ্টাইল ডেস্ক: তু অনুয়ায়ী ত্বকের যত্ন ও পরিচর্যা ভিন্ন। তার মধ্যে গরমকালে ত্বকের বিশেষ রুপচর্চা প্রয়োজন হয়। সূর্যের তাপ এবং ধুলাবালুর কারণে এ সময়ে ত্বকের জন্য প্রয়োজন বাড়তি যত্নর।

কিভাবে গরমে ত্বকের যত্ন নিবেন, চলুন জেনে নেওয়া যাক সেসব উপায়-

নিমপাতার রস

যাদের ত্বকে ঘামাচি হয়, তারা গরমে ত্বকের যত্ন নিতে নিমপাতার রস লাগালে উপকার পাবেন। তেঁতো জাতীয় খাবার খান। ঘাম বেশি হলে ট্যালকম পাউডারের সাথে এক চিমটি খাবার সোডা ব্যবহার করুন।

শসার প্যাক

গরমে ত্বক শুষ্ক হয়ে পড়ে। তাই রূপচর্চা করা জরুরী। ত্বক তৈলাক্ত হলে বার বার মুখ পরিষ্কার করতে হবে। শসা বাটা এবং মসুরের ডাল বাটা দুটো পেস্ট করে মুখে লাগিয়ে ১৫ মিনিট পর মুখ ধুয়ে ফেলুন। আপনার মুখের তেলতেলে ভাব কেটে যাবে।

ময়শ্চারাইজিং ফেইস প্যাক

গোলাপের পাপড়ি, খেঁজুর, দুধে ভিজিয়ে রাখুন, ২/৩ ঘণ্টা পেস্ট করে চন্দনের গুঁড়া মিশিয়ে ত্বকে লাগিয়ে রাখুন। পরে ঠাণ্ডা পানির সাহায্যে ধুয়ে ফেলুন, ত্বক মসৃণ হবে। এছাড়া কমলালেবুর রস ভালো ময়েশ্চার-এর কাজ করে। এর সঙ্গে দুধ ও ময়দা মিশিয়ে মুখের ত্বক পরিষ্কার করার ক্ষেত্রে ব্যবহার করতে পারেন। অতিরিক্ত খসখসেভাব থাকলে রাতে ঘুমানোর সময় ত্বক পরিষ্কার করে পেট্রোলিয়াম জেলি ত্বকে লাগিয়ে ম্যাসাজ করুন। সকালে ধুয়ে ফেলুন উপকার পাবেন। সারা বছরই ব্যবহার করতে পারেন।

রোদে পোড়াভাব দূরীকরণ

লাউয়ের রস, তরমুজের জুস বরফ করে মুখে ঘষুন। এতে রোদে পোড়াভাব দূর হয়ে সাথে সাথে আপনার ত্বক হয়ে উঠবে উজ্জ্বল, মোলায়েম।

তৈলাক্ত ত্বকের প্যাক

গরমে তৈলাক্ত ত্বক দ্রুত ঘেমে যায় ও ময়লা দ্রুত শুষে নেয়। এ সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে আপনি শসার রস পরিমাণমতো, আধা চা চামচ লেবুর রস, আধা চামচ গোলাপ জলে মিশিয়ে লোশনের মতো মুখে লাগিয়ে আধা ঘণ্টা পরে ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে অন্তত চার-পাঁচ দিন করুন।

হিট র্যাশ এড়াতে প্যাক

গরমে অনেকের ত্বকে হিট র্যাশ বের হয়। হিট র্যাশ এড়াতে দইয়ের সাথে হলুদ বা নিমপাতা বাটা মিশিয়ে ত্বকে লাগাতে পারেন। এছাড়া খানিকটা লাউ থেঁতো করে এর সাথে তুলসী পাতা এবং চালের গুঁড়ো মিশিয়ে লাগাতে পারেন। এতে র্যাশ হবে না আবার ত্বকের উজ্জ্বলতাও বাড়বে। তো, সহজেই এই গরমে ত্বকের যত্ন নিয়ে নিতে পারেন।

ওটস-এর প্যাক

এ ভ্যাপসা গরমে ত্বকে তেলের পরিমাণটা একটু বেশিই থাকে। ত্বকের অতিরিক্ত তৈলাক্ততা দূর করতে সিদ্ধ ওটস্, ডিমের সাদা অংশ, লেবুর রস এবং থেঁতো করা আপেল একসঙ্গে মিশিয়ে মুখে লাগান। ১৫ মিনিট পর ঠান্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

ব্রণ-এর জন্য প্যাক

এই গরমে ব্রণের মাত্রা বেড়ে যায়। ব্রন এড়াতে সপ্তাহে তিন, চার বার চিরতার পানি এবং দুই-তিনটি কাঁচা হলুদ ও আখের গুঁড় খেতে পারেন। সব সময় মুখ পরিষ্কার রাখবেন। নিমপাতা, হলুদ, চিরতা ও মুলতানি মাটি এক সঙ্গে মিলিয়ে পেস্ট বানিয়ে ব্যবহার করলেও উপকার পাবেন।

সানস্ক্রিন

গরমের দিনে সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন হচ্ছে সানস্ক্রিন। রোদ থেকে রক্ষা পেতে বাইরে বের হলে অবশ্যই সানস্ক্রিন লোশন ব্যবহার করবেন, বিশেষ করে চোখের নিচের নমনীয় ত্বকের জন্য মেডিকেটেড সানস্ক্রিন এবং তৈলাক্ত ত্বকের জন্য তেলবিহীন সানস্ক্রিনই ব্যবহার করতে হবে। রোদে বাইরে বের হলে অবশ্যই সানস্ক্রিন লোশন ব্যবহার করবেন। সানস্ক্রিন লোশন ব্যবহার করার সময় অবশ্যই খেয়াল রাখবেন তাতে যেন সান প্রোটেকশন ফ্যাক্টর অর্থাৎ এসপিএফ অন্তত ১৫ হয়।

ক্রিম
শুষ্ক ত্বকের খসখসাভাব দূর করার জন্য এবং বলিরেখা পড়ার হাত থেকে রেহাই পাওয়ার জন্য সবসময় ক্রিম ব্যবহার করা উচিত। অবশ্য ক্রিম-এর বদলে বেবি লোশনও ব্যবহার করতে পারেন। তবে গরমের দিনে ক্রিম হতে হবে তেলবিহীন। নতুবা ক্রিম-এর অতিরিক্ত তেল গরমে আরো বেশি সমস্যা তৈরি করবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

GIPHY App Key not set. Please check settings

গণটিকার দ্বিতীয় ডোজ কাল থেকে

পরীমণি আহত হয়ে হাসপাতালে