in ,

টি-টোয়েন্টিতে টাইগারদের বড় জয়

স্পোর্টস মাধ্যম: নাসুম আহমেদের স্পিন ঘূর্ণিতে আফগানিস্তানের বিপক্ষে প্রথম টি-টোয়েন্টি ম্যাচে ৬১ রানের জয় পেয়েছে বাংলাদেশ। বাংলাদেশের দেয়া ১৫৬ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে ৯৪ রানে গুটিয়ে যায় আফগানরা। এই জয়ের ফলে সিরিজে ১-০তে এগিয়ে গেল বাংলাদেশ।

বাংলাদেশের দেয়া ১৫৬ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে শুরু থেকে নাসুমের স্পিন ঘূর্ণির ফাঁদে পড়ে আফগান ব্যাটাররা। নাসুমের বোলিং তোপে ২০ রানেই প্রথম ৪ উইকেট হারায় সফরকারীরা। এরপর দলের হাল ধরেন মোহাম্মদ নবী ও নাজিবুল্লাহ জাদরান। নবী এবং জাদরানের সেই পার্টনারশিপ ভাঙেন সাকিব আল হাসান। নবী এবং জাদরানের বিদায়ের পর বাকি ব্যাটাররাও অসহায় ছিল বাংলাদেশি বোলারদের কাছে। বাংলাদেশি বোলারদের বোলিং তোপে শেষ পর্যন্ত ১৭.৪ ওভারে ৯৪ রানে অল আউট হয় আফগানিস্তান। বাংলাদেশের পক্ষে নাসুম আহমেদ ৪টি ও সাকিব আল হাসান দুইটি উইকেট লাভ করেন।

এর আগে, মিরপুরের শের-ই-বাংলা জাতীয় স্টেডিয়ামে টস জিতে প্রথমে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। উদ্বোধনী জুটিতে নাঈম শেখের সাথে ক্রিজে নামেন অভিষিক্ত মুনিম শাহরিয়ার।

৫ বলে ২ রান করে নাঈম ফিরলেও মুনিম রান তোলার চেষ্টা চালিয়ে যান। তবে ওয়ান ডাউনে নামা লিটন দাসকে ক্রিজে রেখে মুনিমকে ফিরতে হয় সাজঘরে। তার আগে ১৮ বলের মোকাবেলায় ১৭ রান করেন ৩টি চার হাঁকিয়ে।

থিতু হতে পারেননি সাকিব আল হাসান ও অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদও। ৮০ রানে চতুর্থ উইকেট হারানোর পর পঞ্চম উইকেটে ৪৬ রানের জুটি গড়েন লিটন ও আফিফ, যা ভাঙে লিটনের বিদায়ে। ৩৪ বলে অর্ধশতক তুলে নেওয়া লিটন সাজঘরে ফেরার আগে ৪৪ বলে ৬০ রান করেন ৪টি চার ও ২টি ছক্কার সহায়তায়। একই ওভারে আফিফকেও ফিরতে হয় সাজঘরে। তার আগে ২৪ বলে করেন ২৫ রান, হাঁকান ২টি চার।

শেষপর্যন্ত নির্ধারিত ২০ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে বাংলাদেশের সংগ্রহ দাঁড়ায় ১৫৫ রান। টি-টোয়েন্টি আফগানদের বিপক্ষে এটিই বাংলাদেশের সর্বোচ্চ দলীয় সংগ্রহ। আফগানিস্তানের পক্ষে দুটি করে উইকেট শিকার করেছেন আজমতউল্লাহ ওমরজাই ও ফজলহক ফারুকি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

GIPHY App Key not set. Please check settings

৭ মার্চ ছয় দিনের সফরে আমিরাত যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী

শেন ওয়ার্ন আর নেই