in ,

তথ্যমন্ত্রী — সাংবাদিকদের ওপর হামলাকারীদের খোঁজা হচ্ছে

♦মাধ্যম ডেস্ক: রাজধানীর নিউ মার্কেট এলাকায় ব্যবসায়ীদের সঙ্গে ঢাকা কলেজ শিক্ষার্থীদের সংঘর্ষের সময় সাংবাদিকদের ওপর কারা আক্রমণ করেছে তা খুঁজে বের করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ।

বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত পিটার হ্যাসের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

সংঘর্ষ চলাকালে দুই পক্ষই সাংবাদিকদের ওপর হামলা করে। হামলার শিকার একাধিক গণমাধ্যমকর্মী জানিয়েছেন, পরিচয় পাওয়ার পর আরও বেশি মারধর করা হয়েছে। বেশ কয়েকজন হাসপাতালে ভর্তি আছেন।

সাংবাদিকদের ওপর আক্রমণের বিষয়ে কী ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে জানতে চাইলে তথ্যমন্ত্রী বলেন, সেখানে একটি ঘটনা ঘটেছে। ঘটনাটি কারা ঘটিয়েছে সেটা খুঁজে বের করা হচ্ছে। সেখানে আজ পর্যন্ত দুইজন মারা গেছে।

সেখানে যারা নিউজ কভার করতে গেছে তাদেরকে ছাত্ররা আক্রমণ করেছে, নাকি ব্যবসায়ীরা আক্রমণ করেছে সেটা খুঁজে বের করে বিচার হবে। এটার সঙ্গে গণমাধ্যমের স্বাধীনতা সম্পর্কিত নয়।

রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে সাক্ষাতের বিষয়ে মন্ত্রী বলেন, রাষ্ট্রদূত মূলত সৌজন্য সাক্ষাৎ করতে এসেছেন। সেখানে আমাদের মধ্যে অনেক বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়েছে।

আমরা গণমাধ্যম নিয়ে আলোচনা করেছি। বাংলাদেশের গণমাধ্যম কীভাবে কাজ করে এবং সোশ্যাল মিডিয়া নিয়ে আলোচনা করেছি। সারা বিশ্বব্যাপী সোশ্যাল মিডিয়ার চ্যালেঞ্জ নিয়ে কথা হয়েছে।

আমরা জানিয়েছি বাংলাদেশের গণমাধ্যম যেভাবে কাজ করে, অনেক উন্নয়নশীল দেশে এভাবে কাজ করতে পারে না। তাকে আমি ইউকের গণমাধ্যমের উদাহরণ দিয়েছি। সেখানে গণমাধ্যমে ভুল সংবাদ পরিবেশন হলে, কারও বিরুদ্ধে অসত্য সংবাদ পরিবেশিত হলে, কারও চরিত্র হনন করা হলে গণমাধ্যমকে ফাইন গুনতে হয়, ব্যবস্থা নেয়া হয়। সেটা আমাদের দেশে সেভাবে নাই। আমি এই তুলনামূলক চিত্রগুলো তার সামনে উপস্থাপন করেছি।

আর কী বিষয়ে কথা হয়েছে জানতে চাইলে মন্ত্রী বলেন, আমাদের নিরাপত্তা বাহিনীকে তারা (যুক্তরাষ্ট্র) সরঞ্জাম দিয়ে যাচ্ছে। বিশেষ করে সন্ত্রাসবাদ, জঙ্গিবাদ দমনে তাদের যে সহায়তা, সে জন্য ধন্যবাদ জানিয়েছি।

তিনিও (রাষ্ট্রদূত) বাংলাদেশ সন্ত্রাসবাদ, জঙ্গিবাদ দমনে যেভাবে কাজ করছে সেটা প্রশংসা করেছেন। আশা করছি, ভবিষ্যতে আমাদের সম্পর্ক উত্তরোত্তর গভীর হবে।

র‌্যাবের কর্মকর্তাদের ওপর নিষেধাজ্ঞার বিষয়টি আলোচনায় এসেছে কি না জানতে চাইলে তিনি বলেন, আলোচনা হয়েছে। সেটা দীর্ঘ প্রক্রিয়ার মাধ্যমে হয়েছে। সেটি উঠিয়ে নেয়ার বিষয়ে আলোচনা করেছি।

সেটাও একটি প্রসেসের মাধ্যমে হতে হবে। যেভাবে হয়েছে সেই দীর্ঘ প্রসেসের মাধ্যমে করতে হবে। একটু দীর্ঘ হবে সেটাই বলেছেন তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

GIPHY App Key not set. Please check settings

পুঁইপাতার পাকোড়া ও চিড়ার চপ

স্ত্রী হত্যার দায়ে স্বামীর আমৃত্যু কারাদণ্ড