in ,

নিউজিল্যান্ড ঝড়ে কঠিন চ্যালেঞ্জ অস্ট্রেলিয়ার

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ

খেলাধুলা, মাধ্যম: টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ শুরু হয়েছে আগেই। প্রথম রাউন্ড দিয়ে। তবে কুড়ি-বিশের বিশ্ব আসরের মূল আকর্ষণ তো সুপার টুয়েলভ। সেই হিসাবে বিশ্বকাপের ‘আসল’ উত্তেজনা শুরু হয়েছে আজ (শনিবার)। এবং শুরুতেই জমিয়ে দিয়েছে অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ডের দ্বৈরথ।

সিডনি ক্রিকেট স্টেডিয়ামে স্বাগতিক অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে বিশাল সংগ্রহ দাঁড় করিয়েছে নিউজিল্যান্ড। ডেভন কনওয়ের অপরাজিত ৯২ রানে ভর করে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৩ উইকেটে ২০০ রান করেছে কিউইরা।
টস হেরে ব্যাটিংয়ে নামার পর থেকেই নিউজিল্যান্ডের তাণ্ডব। আক্ষরিক অর্থেই সিডনিতে ঝড় তুলেছিলেন ফিন অ্যালেন। এই ওপেনার অস্ট্রেলিয়ান পেসারদের রীতিমতো শাসন করেছেন। জশ হ্যাজেলউডের বলে বোল্ড হওয়ার আগে ১৬ বলে খেলেন ৪২ রানে টর্নেডো ইনিংস। ৫ চার ও ৩ ছক্কায় সাজানো তার ইনিংসটি।

তার ওপেনিং সঙ্গী কনওয়ে শুরুতে ধরে খেললেও সময় গড়ানোর সঙ্গে তিনিও হয়ে ওঠেন ভয়ংকর। অজি বোলাররা তাকে আউট করতে পারেননি। ব্যাট ক্যারি করে মাঠ ছেড়েছেন। তবে আক্ষেপ হয়তো কিছুটা আছে। ওভার না থাকায় সেঞ্চুরি যে পাওয়া হলো না! ৯২ রানে অপরাজিত ছিলেন কনওয়েন। ৫৮ বলের ইনিংসটি তিনি সাজান ৭ বাউন্ডারি ও ২ ছক্কায়।

কিউইদের বড় সংগ্রহের পথে অবদান আছে জিমি নিশামের। শেষ বলে তার ছক্কাতেই তো ২০০ স্পর্শ করে স্কোর। বাঁহাতি ব্যাটার ১৩ বলে ২ ছক্কায় অপরাজিত ছিলেন ২৬ রানে। এছাড়া অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন ২৩ বলে ২৩ ও গ্লেন ফিলিপস ১০ বলে করেন ১২ রান।

অস্ট্রেলিয়ার সব বোলারই ছিলেন খরুচে। তাদের মধ্যে সফল হ্যাজেলউড। এই পেসার ৪ ওভারে ৪১ রান দিলেও পেয়েছেন ২ উইকেট। অ্যাডাম জাম্পা ৪ ওভারে ৩৯ রান দিয়ে নিয়েছেন একটি উইকেট।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

GIPHY App Key not set. Please check settings

খুলনায় সংঘর্ষ, রেলস্টেশনে ভাঙচুর

সাগরে নিম্নচাপ, চার বন্দরে সতর্ক সংকেত