in ,

পাকিস্তানের কোন প্রধানমন্ত্রী কতদিন ক্ষমতায় ছিলেন

♦আন্তর্জাতিক মাধ্যম: পাকিস্তানের ইতিহাসে কোনো প্রধানমন্ত্রী তাদের ৫ বছরের মেয়াদ পূর্ণ করতে পারেননি৷ নির্ধারিত মেয়াদের আগেই নানা কারণে ক্ষমতা থেকে সরে যেতে হয়েছে তাদের৷ ইমরান খান ছিলেন ২২তম প্রধানমন্ত্রী৷

লিয়াকত আলী খান: ৪ বছর, ২ মাস: লিয়াকত আলী খান পাকিস্তানের প্রথম প্রধানমন্ত্রী৷ ১৯৪৭ সালের ১৫ আগস্ট নির্বাচিত হন৷ ১৯৫১ সালের ১৬ অক্টোবর রাওয়ালপিন্ডিতে আততায়ীর গুলিতে তিনি নিহত হন৷ মৃত্যুর আগে ৪ বছর ২ মাস প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্বে ছিলেন তিনি৷

খাজা নাজিমুদ্দিন: ১ বছর ৬ মাস: লিয়াকত আলী খান নিহত হওয়ার একদিন পর ১৯৫১ সালের ১৭ অক্টোবর দায়িত্ব গ্রহণ করেন খাজা নাজিমুদ্দিন৷ ১৯৫৩ সালের ১৭ এপ্রিল নাজিমুদ্দিনকে গভর্নর জেনারেল প্রধানমন্ত্রীর পদ থেকে সরিয়ে দেন৷

মোহাম্মদ আলী বগুড়া: ২ বছর ৩ মাস: ১৯৫৩ সালের ১৭ এপ্রিল গভর্নর জেনারেল মোহাম্মদ আলী বগুড়াকে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নিয়োগ দেন৷ কিন্তু, ১৯৫৫ সালের ১২ আগস্ট পদত্যাগে বাধ্য হন তিনি৷

হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী: ১ বছর, ১ মাস: ১৯৫৬ সালের ১২ সেপ্টেম্বর প্রধানমন্ত্রীর পদ গ্রহণ করেন তিনি৷ কিন্তু, ইস্কান্দার মির্জার সঙ্গে মতপার্থক্যের কারণে ১৯৫৭ সালের ১৭ অক্টোবর পদত্যাগ করেন৷

ইব্রাহিম ইসমাইল চুন্দ্রিগার: ২ মাসের কম: ইব্রাহিম ইসমাইল চুন্দ্রিগার ১৯৫৭ সালের ১৭ অক্টোবর ৬ষ্ঠ প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নিযুক্ত হন৷ ১৬ই ডিসেম্বর পদত্যাগ করেন তিনি৷

মালিক ফিরোজ খান নুন: ১০ মাসের কম: ১৯৫৭ সালের ১৭ ডিসেম্বর ফিরোজ খান নুনকে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীর পদে উন্নীত করেন ইস্কান্দার মির্জা৷ কিন্তু, ১৯৫৮ সালের ৭ অক্টোবর জেনারেল আইয়ুব খান সামরিক আইন জারির সময় নুনকে তার পদ থেকে বরখাস্ত করেন৷

নুরুল আমিন: ১৩ দিন: ১৯৭১ সালের ৭ ডিসেম্বর দীর্ঘ ১৩ বছর সামরিক আইন জারির পর স্বৈরশাসক ইয়াহিয়া খানের প্রশাসনের অধীনে নুরুল আমিনকে প্রধানমন্ত্রী করা হয়৷ বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধে পরাজয়ের পর ২০ ডিসেম্বর আমিনকে সরিয়ে দেওয়া হয়৷

জুলফিকার আলী ভুট্টো, ৩ বছর ১১ মাস: ১৯৭৩ সালের ১৪ আগস্ট প্রধানমন্ত্রী হন তিনি৷ তিনি ১৯৭৭ সালে পুনরায় সাধারণ নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন এবং জয়ী হন৷ কিন্তু, সামরিক অভ্যুত্থানের পর তিনি কারাবন্দি হন এবং ১৯৭৯ সালে ৫ জুলাই ফাঁসি হয় তার৷

মুহাম্মদ খান জুনেজো: ৩ বছর, ২ মাস: মুহাম্মদ খান জুনেজো ১৯৮৫ সালের ২৩ মার্চ প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হন৷ তবে, ১৯৮৮ সালের ২৯ মে জুনেজোর সরকার বরখাস্ত করা হয়৷

বেনজির ভুট্টো: ১ বছর ৮ মাস: জুলফিকার আলী ভুট্টোর মেয়ে বেনজির ভুট্টো ১৯৮৮ সালের ২ ডিসেম্বর পাকিস্তানের প্রথম মহিলা প্রধানমন্ত্রী হিসাবে নির্বাচিত হন৷ ১৯৮৯ সালে তার দল অভিশংসন থেকে বেঁচে যায়৷ কিন্তু, ১৯৯০ সালের ৬ আগস্ট রাষ্ট্রপতি গুলাম ইসহাক খান তাকে সরিয়ে দেন৷

নওয়াজ শরীফ: ২ বছর, ৭ মাস: ১৯৯০ সালের ৬ নভেম্বর দায়িত্ব নেন তিনি৷ কিন্তু, ১৯৯৩ সালে আবারও রাষ্ট্রপতি গুলাম ইসহাক খান একটি নির্বাচিত সরকারকে বরখাস্ত করেন৷ পরে সুপ্রিম কোর্ট শরীফের সরকারকে পুনর্বহাল করেন৷ কিন্তু, ১৯৯৩ সালের ১৮ জুলাই নওয়াজ শরীফ এবং গুলাম ইসহাক খান পদত্যাগ করতে বাধ্য হন৷

বেনজির ভুট্টো: ৩ বছর: বেনজির ভুট্টো ১৯৯৩ সালের ১৯ অক্টোবর পুনরায় প্রধানমন্ত্রী হন৷ কিন্তু, রাষ্ট্রপতি ফারুক লেঘারি ১৯৯৬ সালের ৫ নভেম্বর তার সরকারকে বরখাস্ত করেন৷

নওয়াজ শরীফ: ২ বছর, ৮ মাস: ১৯৯৭ সালের ১৭ ফেব্রুয়ারি নির্বাচনের পর পুনরায় প্রধানমন্ত্রীর পদে অধিষ্ঠিত হন৷ তবে, ১৯৯৯ সালের ১২ অক্টোবর জেনারেল পারভেজ মোশাররফ দেশে জরুরি অবস্থা জারি করেন এবং নওয়াজ শরীফকে ক্ষমতা থেকে সরিয়ে দেন৷

মীর জাফরুল্লাহ খান জামালি: ১ বছর, ৭ মাস: ২০০২ সালের নভেম্বরে জাফরুল্লাহ খান জামালি স্বৈরশাসক পারভেজ মোশারফের অধীনে প্রথম প্রধানমন্ত্রী হন৷ কিন্তু, ২০০৪ সালের ২৬ জুন মোশাররফ তাকে বরখাস্ত করেন৷

চৌধুরী সুজাত: ২ মাস: চৌধুরী সুজাত ২০০৪ সালের ৩০ জুন পার্লামেন্ট নির্বাচনের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী হন৷ শওকত আজিজ প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নির্বাচিত না হওয়া পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করেন সুজাত৷

শওকত আজিজ, ৩ বছর ২ মাস: শওকত আজিজ ২০০৪ সালের ২৮ আগস্ট প্রধানমন্ত্রী নিযুক্ত হন৷ পার্লামেন্টের মেয়াদ শেষ করে ২০০৭ সালের ১৫ নভেম্বর তিনি দায়িত্ব ত্যাগ করেন৷

ইউসুফ রাজা গিলানি: ৪ বছর, এক মাস: ২০০৮ সালের ২৫ মার্চ সাধারণ নির্বাচনের পর প্রধানমন্ত্রী হন৷ তার দল পাকিস্তান পিপলস পার্টি (পিপিপি) জাতীয় পরিষদের সংখ্যাগরিষ্ঠ আসন অর্জন করে৷ কিন্তু, ২০১২ সালে শীর্ষ আদালত অবমাননার মামলায় দোষী সাব্যস্ত হলে তাকে ক্ষমতা থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়৷

রাজা পারভেজ আশরাফ: ৯ মাস: পাকিস্তান পিপলস পার্টি (পিপিপি) সরকারের অবশিষ্ট মেয়াদ শেষ করতে গিলানির কাছ থেকে প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব গ্রহণ করেন রাজা পারভেজ আশরাফ৷ ২০১২ সালের ২২ জুন থেকে ২০১৩ সালের ২৪ মার্চ পর্যন্ত তিনি এই পদে অধিষ্ঠিত ছিলেন৷

নওয়াজ শরীফ: ৪ বছর, ২ মাস: ২০১৩ সালের ৫ জুন তৃতীয়বারের মতো প্রধানমন্ত্রী হন তিনি৷ পাকিস্তানের পূর্ববর্তী সব প্রধানমন্ত্রীর তুলনায় এখন পর্যন্ত তিনি সবচেয়ে দীর্ঘ মেয়াদে দায়িত্ব পালন করেছেন৷ ২০১৭ সালের ২৮ জুলাই সর্বোচ্চ আদালত কর্তৃক অভিশংসিত হওয়ার আগে তিনি ৪ বছর ৫৩ দিন ক্ষমতায় ছিলেন৷শাহীদ খাকান আব্বাসি: ১ বছরের কম

নওয়াজ শরীফকে পদ থেকে সরিয়ে দেওয়ার পরে শাহীদ খাকান আব্বাসিকে ২১তম প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব দেওয়া হয়৷ ২০১৭ সালের আগস্টে তিনি এই দায়িত্ব গ্রহণ করেন৷ কিন্তু, ২০১৮ সালের ৩১ মে তার মেয়াদ শেষ হয়ে যায়৷ কারণ নতুন নির্বাচনের জন্য পার্লামেন্ট ভেঙে দেওয়া হয়৷

ইমরান খান: ৩ বছর ৭ মাস: ২০১৮ সালের ১৮ আগস্ট প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হন ইমরান খান৷ ২০২২ সালের ১০ এপ্রিল জাতীয় পরিষদে বিরোধীদের অনাস্থা ভোটে হেরে ক্ষমতা হারান ইমরান খান৷

Leave a Reply

Your email address will not be published.

GIPHY App Key not set. Please check settings

দুই মামলায় সম্রাটের জামিন

করোনায় মৃত্যু নেই, বেড়েছে শনাক্ত