in

সহধর্মিণীর পাশে চিরনিদ্রায় শায়িত হলেন সাবেক রাষ্ট্রপতি

সহধর্মিণীর পাশে চিরনিদ্রায় শায়িত হলেন সাবেক রাষ্ট্রপতি

মাধ্যম ডেস্ক: সহধর্মিণীর কবরের পাশে চিরনিদ্রায় শায়িত হলেন সাবেক রাষ্ট্রপতি ও প্রধান বিচারপতি সাহাবুদ্দীন আহমদ। রোববার বেলা ১১টা ৫০ মিনিটে রাজধানীর বনানী কবরস্থানে তাঁকে দাফন করা হয়।

শনিবার (১৯ মার্চ) মৃত্যুবরণ করেন সাবেক রাষ্ট্রপতি এবং প্রধান বিচারপতি সাহাবু‌দ্দীন আহমদ। এরপর ওইদিনে বেলা ৩টার দিকে কেন্দুয়ায় সাহাবুদ্দীনের মরদেহবাহী হেলিকপ্টার হেলিপ্যাডে অবতরণ করে সেখান থেকে মরদেহ গাড়িতে করে সড়কপথে নেওয়া হয় তার জন্মস্থান নেত্রকোনা জেলার কেন্দুয়ায়।

সেখানে প্রথম জানাজা বিকাল ৫টার দিকে অনুষ্ঠিত হয়। জানাযা শেষে মরদেহবাহী হেলিকপ্টারটি ফের ঢাকার উদ্দেশে চলে আসে। দ্বিতীয় জানাজা রবিবার (২০ মার্চ) সকালে জাতীয় ঈদগাহে অনুষ্ঠিত হয়।

জানাজা শেষে সাহাবুদ্দীন আহমদের মরদেহ ১১টা ৩৫ মিনিটের দিকে বনানী বেসামরিক কবরস্থানে আনা হয়। এবং দুপুর বেলা ১২টার দিকে তার দাফন সম্পন্ন হয়।

প্রসঙ্গত, সাহাবুদ্দীন আহমদ ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমইচ) চিকিৎসাধীন অবস্থায় শনিবার (১৯ মার্চ) সকালে মারা যান। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৯২ বছর। সাহাবুদ্দীন আহমদ দুই ছেলের সঙ্গে তার গুলশানের বাসায় থাকতেন। তার দুই মেয়ে বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্যে রয়েছেন। বিচারপতি সাহাবুদ্দীন আহমেদ ১৯৩০ সালের ১ ফেব্রুয়ারি নেত্রকোণা জেলার কেন্দুয়া উপজেলার পেমই গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন।

নব্বইয়ের গণআন্দোলনের পর বাংলাদেশের গণতন্ত্রে ফেরার প্রক্রিয়ায় অন্তর্বর্তীকালীন সরকারের রাষ্ট্রপতির দায়িত্ব পালনকারী সাহাবুদ্দীন পরে ১৯৯৬ সালে পুনরায় রাষ্ট্রপ্রধানের পদে ফিরেছিলেন।

২০০১ সালে বঙ্গভবন থেকে বিদায় নেওয়ার পর ঢাকার গুলশানের বাড়িতে অনেকটা নিভৃত জীবন-যাপন করছিলেন সাহাবুদ্দীন আহমদ। দীর্ঘদিন ধরেই তিনি বার্ধ্যক্যজনিত বিভিন্ন অসুস্থতায় ভুগছিলেন। মাসখানেক আগে তাকে সিএমএইচে ভর্তি করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

GIPHY App Key not set. Please check settings

কিয়েভে রুশ হামলায় শিশুসহ নিহত ২২৮ — রয়টার্স

কিয়েভে রুশ হামলায় শিশুসহ নিহত ২২৮ — রয়টার্স

বাংলাদেশ দল ব্যাটিংয়ে

বাংলাদেশ দল ব্যাটিংয়ে